পটভূমি:

মানব-সম্পদ উন্নয়নের গুরুত্বপূর্ণ ও কার্যকর হাতিয়ার হচ্ছে গ্রন্থ বা বই। আর এই গ্রন্থের অন্যতম ভান্ডার হলো লাইব্রেরি বা গ্রন্থাগার। এজন্য দেশব্যাপী গ্রন্থপাঠের সুযোগ সৃষ্টির মাধ্যমে বিভিন্ন শ্রেণির মানুষের মধ্যে পাঠ সচেতনতা বৃদ্ধি ও গ্রন্থপাঠে উদ্বুদ্ধ করার লক্ষে একটি পাঠমনস্ক জাতি গঠন করা প্রয়োজন। জ্ঞানভিত্তিক সমাজ গঠনের প্রত্যয়ে দেশের বৃহৎ জনগোষ্ঠিকে উৎপাদনের মূলধারায় নিয়ে আসতে গ্রন্থপাঠ ও গ্রন্থাগারের অধিক ব্যবহার অনস্বীকার্য। এ লক্ষ্যকে সামনে রেখে ১৯৮৭ সালে তৎকালীন মহামান্য রাষ্ট্রপতির নির্দেশক্রমে শিক্ষামন্ত্রী মহোদয়ের সার্বিক তত্ত্বাবধানে জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্র তার নিজস্ব ভবনে প্রতিষ্ঠা করে মহানগর লাইব্রেরি। বর্তমানে লাইব্রেরিটি ঢাকা মহানগরের সর্বস্তরের মানুষের পাঠাভ্যাস উন্নয়ন, নৈমিত্তিক জীবনের জন্য তথ্যের যোগানদান এবং মননশীলতা চর্চার সুযোগ সৃষ্টির উদ্দেশ্যে পরিচালিত হচ্ছে। প্রায় ৩৪০০ (তিনহাজার চারশত) বর্গফুট আয়তন বিশিষ্ট লাইব্রেরিটিতে রয়েছে মনোরম পড়াশুনার পরিবেশ।

লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য:

১. জনসাধারনের মধ্যে পাঠাভ্যাস সৃষ্টি;
২. দেশীয় প্রকাশনা সমূহের প্রচলন বৃদ্ধি;
৩. জ্ঞান বিজ্ঞান, সাহিত্য, সংস্কৃতি ও তথ্য সংগ্রহে জনসাধারনকে সুবিধা প্রদান;
৪. জনগণকে দেশের নিজস্ব সাহিত্য ও সংস্কৃতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে সাহায্য করা;
৫. বৃহত্তর পাঠক সমাজ সৃষ্টি;
৬. জনগণকে জ্ঞান ও মননশীলতা চর্চায় উদ্বুদ্ধ করা।

অবস্থান:

মহানগর লাইব্রেরিটি ঢাকা মহানগরের ব্যস্ততম গুলিস্তান এলাকায় জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্রের মূলভবনের ৫ম তলায় অবস্থিত।

লাইব্রেরি খোলা থাকে :

রবিবার-বৃহস্পতিবার: সকাল ৯:০০টা-বিকাল ৫:০০ টা। শুক্রবার ও শনিবার সাপ্তাহিক ছুটি। এছাড়া অন্যান্য সরকারী ছুটিতে লাইব্রেরি বন্ধ থাকে।

সংগ্রহ:

মহানগর লাইব্রেরিটি দেশ ও দেশের বাইরের বিভিন্ন পঠন-পাঠনসামগ্রী যেমন-বই, সাময়িকী, পত্রিকা, গেজেট, অডিও ও ভিডিও সিডিসহ ইত্যাদিতে সমৃদ্ধশালী। এখানে বসে পাঠকবৃন্দ খুব সহজেই দেশ ও দেশের বাইরের বিভিন্ন সাহিত্য অঙ্গণে প্রবেশ করতে পারবে। বর্তমানে লাইব্রেরিটির সংগ্রহে রয়েছে প্রায় ১৮০০০ বই, ১৮টি জাতীয় দৈনিক পত্রিকা (বাংলা ও ইংরেজি)। এছাড়াও লাইব্রেরিটি তিনটি স্বনামধন্য আন্তর্জাতিক ম্যাগাজিন (যেমন- ‘দি ইকোনোমিস্ট’, ‘টাইম’ এবং ‘রিডার’স ডাইজেস্ট’) ও একটি দেশীয় ম্যাগাজিন (অনন্যা) নিয়মিত সংগহ করে থাকে।

সদস্য হতে করণীয়:

বাংলাদেশের প্রকৃত নাগরিক যে কেউ লাইব্রেরিটির সদস্য হতে পারবে। সদস্য হবার জন্য আগ্রহী ব্যক্তিকে লাইব্রেরি কর্তৃপক্ষের নিকট থেকে সদস্য ফরম সংগ্রহ করে ১কপি পাসপোর্ট সাঈজের ছবি বাৎসরিক সদস্য ফিস বাবদ নগদ ১০০/- টাকা (অফেরতযোগ্য) এবং জামানত হিসাবে নগদ ১০০/- টাকা (ফেরতযোগ্য) মোট ২০০/- টাকা প্রদান করতে হবে। এছাড়াও আগ্রহী ব্যক্তিকে তার জাতীয় পরিচয়পত্র অথবা জন্ম নিবন্ধনের সত্যায়িত ফটোকপি আবেদন ফরমের সাথে সংযুক্ত করতে হবে। উল্লেখ্য যে, প্রতিবছর সদস্যতা নবায়ন করতে হবে নতুবা সদস্যতা বাতিল বলে গণ্য হবে।

সেবাসমূহ:

মহানগর লাইব্রেরিটি দেশের সর্বস্তরের জনসাধারনের জন্য সর্বদা উন্মুক্ত। শিশু কিশোর থেকে শুরু করে বয়স্ক পর্যন্ত সবাই লাইব্রেরি এবং এর যাবতীয় পঠন-পাঠনসামগ্রী ব্যবহার করতে পারবেন। তবে কেবলমাত্র বৈধ সদস্যবৃন্দ লাইব্রেরি থেকে বই সংগ্রহ করতে পারবেন। এক্ষেত্রে প্রতি সদস্য ১টি বই সর্বোচ্চ ১৫ দিনের জন্য ধার নিতে পারবেন। ১৫ দিনের বেশি সময় বইটি প্রয়োজন হলে সেক্ষেত্রে অবশ্যই বইটি নবায়ন করতে হবে। অন্যান্য সেবাসমূহের মধ্যে রয়েছে ফটোকপি সেবা। তবে এক্ষেত্রে চার্জ প্রদান করতে হবে। পত্রিকা পড়ার জন্য রয়েছে আলাদা পত্রিকা পাঠ কক্ষ। এছাড়াও রেফারেন্স সেবার জন্য রয়েছে আলাদা রেফারেন্স সেকশন।

যোগাযোগ:

মোঃ আমিনুল ইসলাম
গ্রন্থাগারিক
Email: aminul58_islam@yahoo.com
ফোন: ৯৫৫১৫৬২
মোবাইল: ০১৭২০২২০১১৯


মোঃ ফরিদ উদ্দিন সরকার
উপগ্রন্থাগারিক
Email: farid.uddin361972@gmail.com
ফোন: ৯৫৫১৫৬২
মোবাইল: ০১৭১৯৯৮৮৬৮১


কুমারেশ চন্দ্র বিশ্বাস 
সহকারী গ্রন্থাগারিক
Email: kumaresh30.biswas@gmail.com
ফোন: ৯৫৫১৫৬২
মোবাইল: ০১৭১৮২৭০১০৫


মোছাঃ জান্নাতুল ফেরদৌসী
সহকারী গ্রন্থাগারিক
Email:jferdousi74@gmail.com
ফোন: ৯৫৫১৫৬২
মোবাইল: ০১৭৮৯০০৯৮১০